fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণবাংলাদেশহেডলাইন

ইউপি চেয়ারম্যান হত্যা, ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ৫ জনের যাবজ্জীবন

যুগশঙ্খ প্রতিবেদন, ঢাকা: একুশ বছর আগে ইউনিয়ন পরিষদের(পঞ্চায়েত) চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে হত্যার দায়ে ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড ও ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। রবিবার বাংলাদেশের চট্টগ্রামের বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক একেএম মোজাম্মেল হক এই রায় ঘোষণা করেন। চট্টগ্রামের সাতকানিয়া সদর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান নেজাম উদ্দিনসহ ১০ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার পাশাপাশি পাঁচজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে রায়ে। হত্যাকাণ্ডে সংশ্লিষ্টতা প্রমাণিত না হওয়ায় আসামির মধ্যে চারজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

১৯৯৯ সালের ৩ অক্টোবর রাত সোয়া ১২টার দিকে সাতকানিয়া উপজেলার মির্জাখীল দরবার শরিফের ওরস চলাকালে সোনাকানিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনকে (৪৫) গুলি করে হত্যা করা হয়। ওই ঘটনায় তার স্ত্রী সৈয়দা রওশন আকতার বাদী হয়ে সাতকানিয়া থানায় এই হত্যা মামলা দায়ের করেন।

নিহত আমজাদ হোসেনের ভাতিজা আইনজীবী আবদুল আলম তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন,‘দীর্ঘদিন পর বিচার পেয়ে আমরা সন্তুষ্ট। আসামিরা বারবার নানাভাবে বিচার বিলম্বিত করার চেষ্টা করেছে।’

তিনি বলেন,‘আমার চাচা আওয়ামি লিগের রাজনীতি করতেন। তিনি দুইবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। অন্যায়ের প্রতিবাদ করায়, ডাকাত ধরিয়ে দেওয়ায় এবং ডাকাতরা পুলিশের কাছে আসামিদের নাম বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমার চাচাকে হত্যা করে।

আরও পড়ুন: ভারত, হিন্দুত্ববাদ ও মোদির বিরুদ্ধে স্লোগান POK’র জঙ্গি শিবিরে, চাঞ্চল্যকর তথ্য পেল RAW

এদিকে সকালে রায় ঘোষণার আগে নেজাম উদ্দিনের অনুসারীরা আদালত প্রাঙ্গণে অবস্থান নিলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। দুই পক্ষের অনুসারীরা মুখোমুখি অবস্থান নিয়ে পাল্টাপাল্টি স্লোগান দিতে থাকে। এক পর্যায়ে নেজাম উদ্দিনের অনুসারীরা সাংবাদিকদের দিকে তেড়ে যায়। বাক বিতণ্ডার মধ্যে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

Related Articles

Back to top button
Close