fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

প্রেম সম্পর্কে আপওি দুই পরিবারের, আত্মহত্যার চেষ্টার প্রেমিক যুগল, এলাকায় চাঞ্চল্য

মিলন পণ্ডা, মহিষাদল (পূর্ব মেদিনীপুর):  গোপনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল নাবালিকা ও ভিন রাজ্যের এক পরিয়ারী শ্রমিকের। আর সেই সম্পর্কে বাধা হয়ে দাঁড়ায় দুই পরিবার। অবশেষে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় প্রেমিক যুগল। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় প্রেমিক যুগল গলার নলি কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার মহিষাদলে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মহিষাদলের সতীশচন্দ্র সামন্ত হল্ট রেলস্টেশনের কাছে প্রেমিক- প্রেমিকার রক্তাক্ত দেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। এরপর স্থানীয় মহিষাদল থানার পুলিশ তাদের উদ্ধার করে প্রথমে বাসুলিয়া গ্রামীণ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যায় এবং পরে তমলুক জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূএে জানাগেছে, আত্মীয় সম্পর্কের এক নাবালিকার সঙ্গে গড়ে উঠেছিল ভিন রাজ্যের পরিয়ারী শ্রমিক। দুজনের সম্পর্ক মেনে নিতে পারেনি দুই পরিবার। মহিষাদলের নাটশাল-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের কুম্ভচক গ্রামের অসীম ঝুলকি(২৪) পেশায় একজন ভিন রাজ্যের শ্রমিক। পাশের গ্রাম বাসুলিয়ার আত্মীয় সম্পর্কের এক নাবালিকার সঙ্গে গড়ে ওঠে প্রেমের সম্পর্ক। দীর্ঘদিন ধরে চলছিল প্রেম পর্ব। এর মাঝে পরিবারের লোকজন তা জানতে পারে। যাতে পরিবার বাধা হয়ে দাঁড়ায়। আর এর ফলেই প্রেমিক- প্রেমিকা একইসঙ্গে আত্মহত্যার চেষ্টা করে বলে অনুমান। ওই নাবালিকা বর্তমানে দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্রী।

আরও পড়ুন: আমফানের দাপটে গৃহহীন, সরকারী সাহায্য না পেয়ে প্রতিবেশী বাড়িতে আশ্রয় দম্পতি

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা নাগাদ প্রেমিক প্রেমিকার বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে সতীশ চন্দ্র সামন্ত হল্ট রেলস্টেশনের কাছে তাদের গলার নুলি কাটা দেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় মানুষজন। এই ঘটনায় গোটা এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় মানুষজন ও তৎপরতায় মহিষাদল থানার খবর দেওয়া হলে মহিষাদল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছায়। এরপর উভয়কে উদ্ধার করে প্রথমে বাসুলিয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে চিকিৎসকরা তাদের তমলুক জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করে।দুজনের অবস্থায় সঙ্কটজনক বলে হাসপাতাল সূএে জানাগেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মহিষাদল থানার পুলিশ। এক পুলিশ আধিকারিক বলেন প্রেম সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার কারনে এমন বিপওি বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান। পুলিশ পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close