fbpx
আন্তর্জাতিকআমেরিকাহেডলাইন

২০ লাখের বেশি কোভিড ভ্যাকসিন ডোজ তৈরি, ট্রাম্পের ঘোষণায় চাঞ্চল্য

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  গত পাঁচ মাসের বেশি সময় ধরে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। তার মধ্যে শোচনীয় অবস্থা বিশ্বের তথাকথিত এক নম্বর শক্তিধর দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। ইতিমধ্যেই দেশে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ লাখের গণ্ডি ছোঁয়ার মুখে। মৃতের সংখ্যা এক লাখ ১২ হাজারের মতো। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার কোনও লক্ষণই নেই। করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন তৈরির জন্য একাধিক সংস্থা ঝাঁপালেও এখনও কোনও সুখবর পাওয়া যায়নি। এরি মাঝে চ্যাঞ্চলকর তথ্য তুলে ধরল মার্কিন প্রেসিডেন্ট। অথচ মাকিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দাবি করেছেন, ‘করোনা ভ্যাকসিনের ২০ লাখ ডোজ প্রস্তুত হয়েছে।’ তবে কোন সংস্থা ওই ডোজ তৈরি করেছে তা নিয়ে স্পষ্ট কিছু বলেননি তিনি। অন্তত ১২ থেকে ১৮ মাস সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানী-গবেষকরা।  কিন্তু অত সময় দেওয়া সম্ভব নয় মার্কিন প্রেসিডেন্টের পক্ষে। কেননা, আগামী ৩ নভেম্বর দেশে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। জনমত সমীক্ষায় নির্বাচনে তাঁর নিশ্চিত হারের তথ্য উঠে এসেছে। এমতাবস্থায় শুধু করোনার ভ্যাকসিন কিছুটা হলেও ভোট বৈতরণী পার করিয়ে দিতে পারে।

হোয়াইট হাউসে দাঁড়িয়ে বক্তব্য রাখেন ট্রাম্প। সেখানে তিনি বলেন, ‘গতকাল ভ্যাকসিন নিয়ে আমাদের বৈঠক হয়েছে। আমরা খুবই ভাল কাজ করছি। খুব তাড়াতাড়ি কিছু ইতিবাচক ফল আমরা দেখতে পারি। ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে অনেক উন্নতি হয়েছে। ইতিমধ্যেই আমরা ২০ লাখের বেশি ডোজ তৈরি করেছি। সেগুলি সরবরাহ করার জন্য আমরা তৈরি। বর্তমানে তা পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।’ ট্রাম্প আরও বলেন, ‘ভ্যাকসিন তৈরি করা ছাড়াও আমরা থেরাপির ক্ষেত্রেও ভাল কাজ করছি। চিকিত্‍সায় দ্রুত সাড়া পাওয়া যাচ্ছে।’ তাহলে কি কোভিড ১৯-এর ভ্যাকসিন তৈরি করে ফেলেছে আমেরিকা? উত্তর হল, না। এই মুহুর্তে ট্রায়াল চলছে। ট্রাম্প বলেন, ‘সবথেকে ভাল ব্যাপার হল, প্রায় সাত থেকে আটটি কোম্পানি খুব ভাল কাজ করছে। ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে তারা সবাই নিজের মতো চেষ্টা করছে। আশা করছি ভাল ফল আমরা দেখতে পাব।’ যদিও কোন কোম্পানি এখন ভ্যাকসিন তৈরি করছে, সেই ব্যাপারে কিছু বলেননি তিনি।

আরও পড়ুন:  আমেরিকায় বিক্ষোভকারীদের ‘জঙ্গি’ তকমা ট্রাম্পের!

হোয়াইট হাউসের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ডক্টর অ্যান্থনি ফৌসি এই সপ্তাহে জানিয়েছিলেন, কার্যকরী ভ্যাকসিন তৈরি করার জন্য অন্তত চারটি ট্রায়াল চলছে আমেরিকায়। ২০২১ সালের শুরুর দিকেই কয়েক লাখ ডোজ তৈরি হয়ে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। ইতিমধ্যেই জোর কদমে ট্রায়াল শুরু করেছেন বিজ্ঞানীরা। বেশ কিছু ট্রায়াল অনেকটা এগিয়ে গিয়েছে। শুক্রবার ট্রাম্প বলেন, এই ভাইরাসকে এখন বোঝা যাচ্ছে। যদিও বিজ্ঞানীরা কিন্তু বলছেন, এখনও কোভিড ১৯-এর প্রকৃতি পুরোটা তাঁরা বুঝতে পারছেন না। বারে বারে চরিত্র বদল হচ্ছে এই ভাইরাসের। আর তাই ভ্যাকসিন তৈরি করতে এতটা সময় লাগছে।

 

 

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close