fbpx
আন্তর্জাতিকআমেরিকাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

হোয়াইট হাউসে আলাদা বেডরুম, পরাজিত ট্রাম্পকে ডিভোর্সের পথে মেলানিয়া!

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: দেশ হাতছাড়া হওয়ার পর এবার ঘরনীও হাতছাড়া হওয়ার পথে ডোনাল্ডের। হোয়াইট হাউস থেকে বের হলেই ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ডিভোর্স দিতে পারেন বর্তমান ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। ‌ ইতিমধ্যে এমনই জল্পনা ছড়িয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্টের ঘনিষ্ঠমহলে ও হোয়াইট হাউসের অন্দরেও।

জানা গিয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হওয়ার পরেই এমন সিদ্ধান্ত নেন মেলানিয়া। এমনটাই দাবি মেলানিয়ার প্রাক্তন সহযোগী ওমারোজা মানিগল্ড নিউ ম্যানের। ১৫ বছরের বিবাহ সম্পর্ক ইতিমধ্যেই শেষ। ‌ ডোনাল্ড এর সঙ্গে সমস্ত রকম সম্পর্ক ছিন্ন করার পথে হাঁটবেন মেলানিয়া। বিবাহ-বিচ্ছেদের সেই মুহূর্তের জন্য প্রতিটা মিনিট এখন গুনছেন, হোয়াইট হাউস থেকে বেরোলেই সেই প্রক্রিয়া শুরু করবেন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। দাবি মানি গল্ডের।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বলেন মেলানিয়া এই সিদ্ধান্ত এ সময় নিল তার কারণ যদি মেলানিয়া হোয়াইট হাউস ছেড়ে আগে বেরিয়ে যেতেন তাহলে তাকে শাস্তি দেওয়ার জন্য ডোনাল্ড ট্রাম নিজের ক্ষমতার প্রয়োগ করতেন। যার ফলে সামাজিক ব্যক্তিগতভাবে সমস্যার মুখোমুখি হতে হতো মেলানিয়া কে। সেই কারণেই তিনি নির্বাচনে ডোনাল্ডের পরাজয়ের এই সময়কেই মোক্ষম হাতিয়ার করেছে বলে দাবি মানি গোল্ডের।

অপরদিকে অন্য আর এক প্রাক্তন সহযোগী স্টেফানি ওকফের দাবি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া দুজনেই পৃথক বেডরুমে থাকেন। এবং তাদের সম্পর্কের শীতলতা অনুভব করতে হয় হোয়াইট হাউসকে।

উল্লেখ্য ডোনাল্ড ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্প। বিয়ের পর থেকেই তাদের সম্পর্কের ঘাত প্রতিঘাত নিয়ে চর্চা হয়েছে বহু সংবাদমাধ্যমে। প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর সেই চর্চা গুঞ্জন শোনা যায় হোয়াইট হাউজের অন্দরেও। ২০১৬ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ওয়াশিংটনে আসেননি মেলানিয়া। তাদের পুত্র স্কুল ফাইনাল পরীক্ষার কারণে প্রায় একমাস নিউইয়র্ক সিটিতে একা ছিলেন মেলানিয়া। তা নিয়েও জল্পনা কল্পনা কম হয়নি। এরপর প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর হোয়াইট হাউসের হলে শপথ গ্রহণের সময় মেলানিয়ার অদ্ভুত ভাবে ডোনাল্ড এর হাত ছাড়িয়ে নেওয়ার দৃশ্য জল্পনা উস্কে দিয়েছিল ডোনাল্ড মেলানিয়া সম্পর্ক নিয়ে। এবার ক্ষমতাচ্ছ্যুত জনের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের পর থেকেই হয়তো বেছে নেবেন মেলানিয়া।

Related Articles

Back to top button
Close