fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খদেশহেডলাইন

দেশে টিকাকরণে শীর্ষে উত্তরপ্রদেশ, তিনে উঠে এল পশ্চিমবঙ্গ 

নিজস্ব প্রতিনিধি: পশ্চিমবঙ্গ তথা দেশজুড়ে টিকাকরণের গতি বহুগুণে বেড়েছে। নিঃসন্দেহে এটা রাজ্য তথা দেশবাসীর কাছে অত্যন্ত খুশির খবর। আর সেখানে দেখা যাচ্ছে টিকাকরণের নিরিখে দেশের মধ্যে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে পশ্চিমবঙ্গ।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবারই টিকাকরণে ১০০ কোটির মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলেছে ভারত। এই সংখ্যার ধরে কাছে নেই বিশ্বের কোনও দেশ। সেখানে টিকাকরণে দেশের মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ। ১২ কোটিরও বেশি টিকাকরণ হয়েছে ওই রাজ্যে। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে মহারাষ্ট্র। সেই রাজ্যে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত টিকাকরণ হয়েছে ৯ কোটি ৩৬ লক্ষ ১০ হাজার ৫৬১। আর তৃতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। ওই একই সময়ের মধ্যে এ রাজ্যে টিকাকরণ হয়েছে ৬ কোটি ৮৬ লক্ষ ৯৩ হাজার ৫৯৪। তারপরেই রয়েছে গুজরাত এবং মধ্যপ্রদেশ। এই দুই রাজ্যেই সাড়ে ৬ কোটির বেশি মানুষের টিকাকরণ হয়ে গিয়েছে।

একটা সময় টিকাকরণে অন্য রাজ্যগুলির থেকে অনেকটাই পিছিয়ে পড়েছিল পশ্চিমবঙ্গ। তবে সাম্প্রতিককালে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক মানুষকে টিকা দিতে পেরেছে রাজ্য। তাই তালিকায় অনেকটাই ওপরের দিকে উঠে এসেছে বাংলা। স্বাভাবিকভাবেই বাকি রাজ্যগুলিকে পিছনে ফেলে টিকাকরণে পশ্চিমবঙ্গের তৃতীয় স্থানে উঠে আসাটাকে বড় কৃতিত্ব বলে মনে করছে রাজ্য সরকার। গত সোমবার দশ লক্ষেরও বেশি টিকাকরণের পর মধ্যপ্রদেশ এবং গুজরাতকে টপকে তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে পশ্চিমবঙ্গ। টিকাকরণের দিক থেকে জেলাগুলির মধ্যে এগিয়ে রয়েছে কলকাতা। তারপরই উত্তর ২৪ পরগনা, আর তৃতীয় স্থানে রয়েছে হুগলি। রাজ্য প্রশাসন সূত্রে খবর, কালিম্পং, দার্জিলিং এবং বীরভূমেও টিকাকরণে ভাল সাড়া মিলছে।

গত ১৬ জানুয়ারি দেশে প্রথম টিকাকরণ শুরু হয়। দ্রুত টিকাকরণের লক্ষ্য নিয়ে এগোতে শুরু করে কেন্দ্র। তবে একটা সময় চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে টিকা পাওয়া যায়নি। বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি সরব হয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পর্যাপ্ত টিকা না পাওয়ার অভিযোগ তুলেছিলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবালও। তবে পরবর্তীকালে টিকার উৎপাদন বাড়তে থাকায় প্রত্যেকটি রাজ্য বিপুল সংখ্যায় টিকা পেতে শুরু করে। সব মিলিয়ে দেশে টিকাকরণের গতি অন্য মাত্রা পায়।

Related Articles

Back to top button
Close