fbpx
অফবিটহেডলাইন

‘বিদ্রোহ আর চুমুর দিব্যি শুধু তোমাকেই চাই’….

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:               ঠোঁটে ঠোঁট রেখে ব্যারিকেড কর

                                                   প্রেমের পদ্যটাই বিদ্রোহ আর চুমুর দিব্যি

                                                               শুধু তোমাকেই চাই”….

 ভালোবাসা যখন তখন হতে পারে। ভালোবাসা একটা আর্ট, ভালোবেসে রোজ নতুন করে আবিষ্কার করা যায় প্রিয় মানুষটিকে। প্রিয় মানুষকে ভালোবাসার জন্য বিশেষ দিনের প্রয়োজন হয় না, ৩৬৫ দিনও কম পরে যায়। ২০২০ দাঁড়িয়ে অনেকে সেই নব্বইএর দশকের নস্টালজিয়াকে খুঁজে বেড়ান। কিন্তু আজকের ব্যস্ত জীবনের দুটো মানুষ একে অপরের সঙ্গে সেই ভাবে সময় দিতে পারে না। তাই বছরের একটি বিশেষ দিনে নিজের মনের মানুষের সঙ্গে একান্তে কোয়ালিটি টাইম কাটানোর জন্য রইল শহরের কিছু বিশেষ জায়গার সন্ধান। এই বিশেষ স্থানে নেই পুলিশের ঝামেলা। তাই নিশ্চিন্তে মনের মানুষের ঠোঁটে ঠোঁট রেখে উষ্ণতা দিতে পারেন।

প্রিন্সেপ ঘাট প্রাকৃতিক শোভা উপভোগের সঙ্গেই প্রেম উপভোগের আদর্শ জায়গা। কেউ দেখলেও বিশেষ আপত্তি জানাবে না। প্রিন্সেপের নামাঙ্কিত সৌধের থামগুলির আড়ালে প্রয়োজনীয় গোপনীয়তাটুকুও পেয়ে যাবেন। চাইলে নৌকায় প্রমোদ ভ্রমণেও যেতে পারেন। নৌকা ঘাট ছাড়ার পরেই মাঝি আপনাদের অভিপ্রায় বুঝে ছইয়ের পর্দাটিও, দেখবেন, ঠিক ফেলে দিয়েছেন।

মোহর কুঞ্জ রবীন্দ্র সদনের উল্টোদিকে ফলে, ফলে সুসজ্জিত পার্কটির নাম মোহর কুজ্ঞ বা সিটিজেন পার্ক। সেদিক থেকে দেখতে গেলে সারাবছরই এই পার্কে বসন্ত বিরাজ করে। যুগলের আনাগোনা লেগে থাকে। ভ্যালেন্টাইন্স ডে তে নিজের নরম ঘাসের ছোঁয়ায় প্রাণের মানুষকে নিয়ে ভালোবাসায় মগ্ন হতে পারেন।

সেন্ট্রাল পার্ক প্রণয়ীযুগলের পক্ষে সল্টলেকেরই আর এক স্বর্গোদ্যান। এখানে ঘনিষ্ঠ হবার অবাধ লাইসেন্স রয়েছে সকলের। আর তার পরেও গোপনীয়তা রক্ষা করতে চাইলে, জানিয়ে রাখা যাক, এখানে গাছপালা ঝোপঝাড়েরও অভাব নেই।

ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল কলকাতার যুগলদের পছন্দের সনাতন জায়গা। প্রশস্ত উদ্যান রয়েছে। ঘাসের ওপর বসে পড়ুন, চলে আসুন একে অপরের কাছাকাছি। কেউ আপনাদের বিরক্ত করবে না।

রবীন্দ্র সরোবর লেক দক্ষিণ কলকাতার প্রাতঃভ্রমণকারীদের সঙ্গে সঙ্গে যুগলদেরও প্রিয় স্থান এই জায়গা।

রেড রোড– ময়দানের পাশ দিয়ে চলা রেড রোডের ওপর ভ্যালেন্টাইন্স ডে সন্ধ্যায় হাত ধরে ঘুরতেই পারেন। নিভৃতে চুম্বনে এখানে অবশ্য আপনাকে কেউ বিরক্ত করতে আসবে না।

বাগবাজার ঘাট চুমু খাওয়ার পক্ষে প্রিন্সেপ ঘাটের মতো অতটা অনুকূল না হলেও বাগবাজার ঘাটও মন্দ নয়। উত্তর কলকাতার বিভিন্ন কলেজের ছাত্রছাত্রীদের খুবই পছন্দের অঞ্চল এই ঘাট, আর ঘাট সংলগ্ন বটগাছটির তলদেশ।

ঢাকুরিয়া লেক রবীন্দ্র সরোবর লেকের ঠিক পিছন দিকটাই ঢাকুরিয়া লেক। ভ্যালেন্টাইন্স ডে উজ্জাপন করতে যুগলরা মাঝে মাঝেই সকাল সন্ধ্যে এখানেই ঘুর ঘুর করেন। খোলা ছড়ানো জায়গায় অনেকক্ষণ ঘুরে বেড়ানো ও সময় কাটানোর জন্য আদর্শ।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close