fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নদী বাঁধ ভেঙে প্লাবিত মিনিখাঁর বিস্তীর্ণ এলাকা

পরিমল দে, বসিরহাট: আমফানের ক্ষতিপূরণের রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও নদী বাঁধ ভেঙে প্লাবিত বিস্তীর্ণ এলাকা। ক্ষতির মুখে বসিরহাট মহকুমার মিনিখাঁর মোহনপুর পঞ্চায়েতর বেশ কয়েকটি গ্রামের মানুষ।  গত মে মাসের কুড়ি তারিখে প্রবল ঘূর্ণিঝড় আমফানের দাপটে মিনাখাঁর বিদ্যাধরী নদী বাঁধের বিভিন্ন জায়গায় ভেঙে গিয়ে প্লাবিত হয়েছিল বেশ কয়েকটি গ্রাম। ক্ষতি হয়েছিল মেছো ভেড়ির, চাষের জমি, বসতবাড়ির। সেইসব ক্ষতিপূরণের রেশ এখনো পর্যন্ত কাটিয়ে উঠতে পারেনি এলাকার বাসিন্দারা। সেই ক্ষতিপূরণের রেশ কাটতে না কাটতেই বৃহস্পতিবার অমাবস্যার ভরা কটালে বিদ্যাধরী নদী বাঁধ ভেঙ্গে প্লাবিত হলো মিনাখাঁর মোহনপুর অঞ্চলের চন্ডি বাড়ি, মল্লিক ঘেরি, হরিণ সহ একাধিক গ্রাম।

আরও পড়ুন: কাটোয়ায় নদীবাঁধ মেরামতির উপকরনের মান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ বিধায়কের

ইতিমধ্যে নদীর নোনা জলের তলায় চলে গিয়েছে কয়েক হাজার বিঘার চাষের জমি ও মেছো ভেড়ির জমি। গ্রামের ভিতরে ও জল ঢুকে যাওয়ার ফলে চিন্তায় পড়েছে এলাকার বাসিন্দারা। হঠাৎ করে আবারও এই নদী বাঁধ ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে এলাকার বাসিন্দারা। এখনো পর্যন্ত আমফানের ক্ষতিপূরণের টাকা অনেকে পাইনি। প্রদীপ দাস, রামপ্রসাদ দাস, ভবানী মন্ডল এর বক্তব্য,’আমরা এখনো পর্যন্ত আমফানের ক্ষতিপূরণের টাকা পাইনি, ভেঙে যাওয়া বাড়ি এখনো পর্যন্ত ঠিকঠাক করতে পারেনি, তার মধ্যে আবার ও নদী বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় চাষের জমিতে নোনা জল ঢুকে গেছে, জানিনা আগামী দিনে কিভাবে বেঁচে থাকব। মিনাখা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপেশ পাত্র বলেন,’দুর্ঘটনা একটা ঘটে গিয়েছে, ভাটা নামার সঙ্গে সঙ্গে বাঁধ মেরামতির কাজ শুরু হবে’।

Related Articles

Back to top button
Close