fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আদালতের রায়ের অবমাননা না করেই ছট পুজো করুন! ভিডিও মারফত মুখ্যমন্ত্রীর আবেদন

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ‘আদালতের রায়ের অবমাননা নয়। বরঞ্চ তা বজায় রেখেই ছটপুজো পালন করুন। শুভেচ্ছা বার্তার সঙ্গে ভিডিও মারফত আবেদন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এর পাশাপাশি তিনি অনুরোধ করেন কোভিড বিধিও মেনে চলার জন্য।

দূর্গা ও কালী পুজো যেভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে করা হয়েছে, সেইভাবেই ছট পালন করতে বলা হয়েছে হিন্দি ভাষীদের। মিছিল করে, ভিড় করে, জটলা না করেই ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে জলাশয়ে যান ও পুজো সম্পন্ন করুন। আমরা দুর্গাপুজো বা দীপাবলি ঠিক ভাবে পালন করতে পারলে ছট কেন ঠিক ভাবে পালন করতে পারবো না। এটাও আমরা ঠিক ভাবেই পালন করবো। সেই সঙ্গে মনে রাখবেন বাজিতে নিষেধাজ্ঞা আছে কোভিডের কারনে, সেটা মেনে চলুন। রবীন্দ্র সরোবর ও সুভাষ সরোবরে কেউ যাবেন না। সেখানে আদালতের নিষেধাজ্ঞা আছে। বিকল্প ব্যবস্থা করা হয়েছে। কলকাতা ও শহরতলিতে প্রায় দেড় হাজার জলাশয়ে ছট পুজোর জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাতে এক জায়গায় ভিড় না হয়, সেজন্যই মূলত এই বিকল্প ব্যবস্থা।’ এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে এভাবেই ছটপুজোর জন্য শুভেচ্ছা ও প্রয়োজনীয় বিধি মেনে চলার অনুরোধ জানালেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তবে কলকাতায় যাতে ছট পুজোর জন্য কোনও অসুবিধা না হয় তার জন্য আগে থেকেই বিকল্প ব্যবস্থার পথে হেঁটেছে কলকাতা পুরনিগম কর্তৃপক্ষ। ব্যবস্থা করা হয়েছে কৃত্রিম জলাশয়ের। গতকালই দক্ষিন কলকাতার প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের কাছে তেমনই একটি জলাশয় তৈরীর কাজ খতিয়ে দেখেন কলকাতার পুরপ্রশাসক তথা রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। এবার ছটপুজোর জন্য প্রায় শতাধিক গঙ্গার ঘাট ও কৃত্রিম জলাশয় তৈরি করা হচ্ছে পুরনিগমের তরফে। এরমধ্যেই ৫৫টি কৃত্রিম জলাশয় প্রস্তুত করছে পুরনিগম। পুণ্যার্থীদের সুবিধার জন্য গঙ্গার ঘাট ও কৃত্রিম জলাশয়গুলিতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আলোরও বন্দোবস্ত করা হয়েছে। একইসঙ্গে কোভিড পরিস্থিতির কথা ভেবে মাস্ক পরাও বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। পুজোর ঘাটগুলিতে বিনামূল্যে মাস্ক বিলিও করা হবে পুরনিগমের উদ্যোগে। ঘাটগুলিতে থাকছে পর্যাপ্ত শৌচালয়ও। একই সঙ্গে রবীন্দ্র সরোবরের চারদিক টিন দিয়ে ঘিরে দেওয়া হচ্ছে যাতে কোনও ভাবেই সেখানে কেউ ঢুকতে না পারে। পুলিশের পক্ষ থেকে পূণ্যার্থীদের সঙ্গেও এই নিয়ে কথা বলা হচ্ছে। তাদের বোঝানো হচ্ছে যাতে রবীন্দ্র সরোবরে গতবারের মতো যাতে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি না করা হয়। সে ক্ষেত্রে পুলিশ আইনি ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে।

আরও পড়ুন: ‘মমতা মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছে’: বিজেপির বিশেষ পর্যবেক্ষক বিনোদ সনকর

অন্যদিকে, রবীন্দ্র সরোবরে এবং সুভাষ সরোবরে এবার যাতে কোনও ভাবেই ছটপুজো না-হয়, তার জন্য রাজ্য সরকারকে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছিল পরিবেশ আদালত।  সেই নির্দেশকেই বহাল রেখে ছট পুজো নিয়ে কড়া নির্দেশিকা জারি করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। হাইকোর্টের দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের স্পষ্ট নির্দেশ ছিল, প্রত্যেক পরিবার থেকে দুজনের বেশি জলাশয় যাওয়া যাবে না। ঢাক বা ছোট বাদ্যযন্ত্র ছাড়া বিদ্যুৎ চালিত ডিজে বাজনা বোঝানো যাবেনা। করা যাবে না শোভাযাত্রাও। খোলা যানবাহনে চেপে জলাশয়ে আসতে হবে। পুজোয়  অংশগ্রহণকারীরা সবাই জলাশয় যেতে পারবেন না। হাইকোর্টের এই নির্দেশের পুনর্বিবেচনার আর্জি নিয়ে এদিন হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয় রাজ্য সরকার।

Related Articles

Back to top button
Close