fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বেহাল রাস্তা সারাইয়ের দাবিতে গ্রামবাসীদের বিক্ষোভ

মিল্টন পাল, মালদা: রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় রাস্তা সংস্কারের জন্য পথশ্রী ঘোষনা করলেও বেহাল রাস্তা সংস্কারের কোন বালাই নেই। সম্প্রতি ওই রাস্তা দিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার সদ্যজাত শিশুর মৃত্যুর হয়। বারংবার প্রশাসনকে জানিয়েও কোন কাজ হয়নি। বাধ্য হয়ে  মানিকচক ব্লক প্রশাসনিক ভবন ঘেরাও করে অবস্থান বিক্ষোভ করে গ্রামের বাসিন্দারা। দীর্ঘক্ষন অবস্থান বিক্ষোভের পর বিডিওর আস্বাসে অবরোধ তুলে নেয় গ্রামবাসীরা।

জানা গিয়েছে, মালদার মানিকচক ব্লকের অন্তর্গত দক্ষিণ চন্ডীপুরের পশ্চিম নারায়নপুর, মহেন্দ্র টোলা, জানকীরামটলা এলাকার বাসিন্দারা বহুদিন ধরেই বেহাল রাস্তার সমস্যায় ভুগছেন। দীর্ঘ ৬ কিলোমিটার রাস্তা বেহাল। এমনকি বিষয়টি প্রশাসনকে বারবার জানানো সত্বেও তারা কোনও পদক্ষেপ গ্রহণ করেননি। সম্প্রতি বেশ কয়েকদিন আগে এই বেহাল রাস্তা দিয়ে গর্ভবতী মহিলাকে নিয়ে যাওয়ার সময় রাস্তাতেই প্রসব হয়। এরপর সেখানেই মৃত্যু হয় সদ্যোজাত শিশুর। আর এই ঘটনার পরে এলাকাবাসীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে।

[আরও পড়ুন- দেড় মাসের সন্তানকে নিজে হাতে কুপিয়ে খুন করার অভিযোগ উঠল মায়ের বিরুদ্ধে]

শুক্রবার মানিকচক ব্লক প্রশাসনিক ভবনের সামনে পাকা রাস্তার দাবিতে বিডিও অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখায়। প্রায়ই দুই ঘণ্টা ধরে চলে এই অবস্থান বিক্ষোভ। পরে মানিকচকের বিডিওর আশ্বাসে অবস্থান-বিক্ষোভ তুলে নেন গ্রামের বাসিন্দারা। গ্রামের বাসিন্দা পুজা মন্ডল জানান, ছয়টি গ্রামের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা এটা। দীর্ঘদিন ধরে বেহাল হয়ে রয়েছে ছয় কিলোমিটার রাস্তা। প্রশাসন থেকে জন প্রতিনিধিদের জানালেও কোন লাভ হয়নি। আর যার ফলে এই রাস্তায় শিশু মৃত্যুর ঘটনাও ঘটে। কোন কেউ অসুস্থ হয়ে গেলে কোন অ্যাম্বুলেন্স গাড়ি ঢুকতে পারে না। তাই এদিন আমরা পাকা রাস্তার দাবিতে ব্লক অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাই।

মালদা জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌড় চন্দ্র মন্ডল বলেন, ইতিমধ্যেই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য টেন্ডার ডাকা হয়েছে। দ্রুত রাস্তা সারাইয়ের কাজ আরম্ভ হবে।জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি অজয় গাঙ্গুলী বলেন, এটা মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলন। নিজেদের দাবিতে তারা আন্দোলন করেছে। সব টাকায় তো কাটমানি আর তোলাবাজিতে চলে যায় রাস্তা কি তৈরি হবে। তাই মানুষ বাধ্য হয়ে আন্দোলন করছে। আমরা মানুষের পাশে রয়েছি।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close