fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্যে বাড়ছে নারী নির্যাতন, বিজেপির পক্ষ থেকে ক্যারাটে শিবিরের আয়োজন

মিল্টন পাল, মালদা: রাজ্যে বাড়ছে নারী নির্যাতন। বাংলায় বাড়ছে নারীদের উপর অত্যাচার ধর্ষণ। অথচ নিরাপত্তা নেই মহিলাদের। তাই উমা নারী নিরাপত্তা বিষয়ক এক ক্যারাটে শিবিরের আয়োজন করলো জেলা বিজেপি। বুধবার মালদা পুরাটুলি বাঁধ রোড এলাকায় জেলা বিজেপির কার্যালয়ে এই শিবিরের উদ্বোধন করা হয়।এদিনে শিবিরে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিজেপি সভাপতি গোবিন্দ চন্দ মন্ডল সহ বিজেপি নেতৃত্ব।

জানা গিয়েছে, বাংলা জুড়ে বাড়ছে নারী নির্যাতনের ঘটনা। কোথাও ধর্ষণ আবার কোথাও ধর্ষণের পর খুন করা হচ্ছে তার ওপর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে। নারীদের ওপর এই ধরনের নৃশংস ঘটনা ঘটলেও জেলা প্রশাসন থেকে রাজ্য প্রশাসন ভ্রুক্ষেপ নেই কারোর। তার ওপর রাতের অন্ধকারে বাড়ছে দুষ্কৃতীদের হাতে নারীদের অত্যাচার। সব ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন নিশ্চুপ কোনরূপ ব্যবস্থা নিচ্ছে না। তাই আতঙ্কে রয়েছে বাংলার মহিলারা। তাই এবার মহিলারা নিজেদের আত্মরক্ষাই বিজেপির উদ্যোগে উমা নারী নিরাপত্তা শিবিরের আয়োজন করা হয়। সেখানে প্রশিক্ষকের মাধ্যমে এই নারী নিরাপত্তা শিবির করা হয়। মালদা জেলা বিজেপির কার্যালয়ে এই শিবিরের আয়োজন করা হয়। এদিন জেলার প্রায় সাড়ে ৩০০ জন মহিলা শিবিরে অংশ নেয়। এই শিবির এদিন শহরে করা হয়েছে এরপর গ্রামেও ছোট ছোট শিবির করা হবে। যাতে মহিলারা নিজেদের সুরক্ষা নিজেরাই করতে পারে।

[আরও পড়ুন- পণের দাবিতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে বালিশ চাপা দিয়ে খুন!]

শিবিরে আসা শর্মিতা দাস বলেন, আমরা টিভি খুললেই দেখতে পাই নারীদের উপর অত্যাচার ধর্ষণ প্রতি নিয়ত ঘটে চলেছে। অথচ কম ক্ষেত্রেই সেই নারীর নিরাপত্তার সুরাহা হয়। তাও আবার কয়েক বছর পর। আর যার ফলে দিনের পর দিন এই নির্যাতন ও ধর্ষণের মতো ঘটনা ঘটে যায়। বর্তমানে যে পরিস্থিতি আমাদের প্রতিদিন প্রাইভেট টিউশন পড়তে বাইরে বের হতে হয়। সেক্ষেত্রে আমাদের কোনো নিরাপত্তা থাকে না। এই প্রশিক্ষণ শিবিরে নিজেদের নিরাপত্তার নিজেরাই করতে পারবে এমনই কিছু প্রথা শিখিয়ে দেওয়া হয়েছে। যার ফলে আমরা উপকৃত হব। এটা একটা ভালো দিক। এর ফলে অনেক মহিলাই নিজেদের নিরাপত্তার নিজেরাই দিতে পারবে।

জেলা বিজেপির সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল বলেন, দেশজুড়ে নারীদের কোন নিরাপত্তা নেই। খুন ধর্ষণের মতো ঘটনা আকসার ঘটছে। যার ফলে নারীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। আর সেই দিকে নজর রেখে নারীদের নিরাপত্তার জন্য এই বিশেষ শিবিরের আয়োজন করা হয়েছে। যাতে তারা নিজেদের নিরাপত্তার নিজেরাই দিতে পারে এই শিবিরে এদিন শহরে করা হয়েছে এর পরে গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় করা হবে।

জেলা তৃণমূলের কো-অর্ডিনেটর দুলাল সরকার বলেন, এইসব শিবির করার প্রয়োজন রয়েছে। তবে এই রাজ্যে নয়। এই রাজ্যের নারীরা যথেষ্ট সুরক্ষিত। এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন নারী।  যখন এখানে নারী নির্যাতন হয়েছে পুলিশ সঠিক সময়ে সঠিক ব্যবস্থা নিয়েছে। সে পার্কস্টিট বা কামদুনি কাণ্ড হোক। উত্তরপ্রদেশে বিজেপি শাসিত রাজ্যে যেখানে হাথরাসের ঘটনা ঘটে বিজেপির উচিত সেখানে গিয়ে এই শিবির গুলি করা।

 

Related Articles

Back to top button
Close