fbpx
ক্রিকেটখেলাহেডলাইন

ছুটি নেয়নি ধোনিও, জাতীয় কর্তব্যে অবহেলা…বিরাটের পিতৃকালীন ছুটি নিয়ে সরব ক্রিকেটমহল

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  বাবা হতে চলেছেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি । সেকারণে অস্ট্রেলিয়ার  বিরুদ্ধে একটি মাত্র টেস্টেই মাঠে নামবেন তিনি। তারপরই স্ত্রী অনুষ্কা শর্মার পাশে থাকতে দেশে ফিরে আসবেন। ইতিমধ্যে গত মাসেই অ্যাডিলেড টেস্ট খেলে বাড়ি ফেরার অনুমতি চেয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক। সোমবার তাঁকে সেই অনুমতি দিয়েছে বোর্ড।

কিন্তু এই নিয়েই এবার দেখা দিল নয়া বিতর্ক। সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রিকেট ফ্যানদের একাংশের রোষের মুখে পড়তে হয়েছে ভারতের অধিনায়ককে। অনেকেই আবার ধোনির উদাহরণও টেনে আনছেন। কারণ মেয়ে জিভার জন্মের সময় দেশে ফেরেননি তৎকালীন ভারত অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি । অস্ট্রেলিয়া–নিউজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে  ভারতীয় দলকে  নেতৃত্ব দিতেই ব্যস্ত ছিলেন। আর বিষয়টি তুলেই সোশ্যাল মিডিয়ায় কোহলিকে খোঁচা নেটিজেনদের একাংশের।

আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফরে টি-২০, ওয়ানডে এবং টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত। টি–২০ এবং ওয়ানডে সিরিজে কোহলি থাকলেও টেস্ট সিরিজের কেবল প্রথমটিতে মাঠে নামবেন। অ্যাডিলেডে অনুষ্ঠিত দিন–রাতের টেস্টের পরই দেশে ফিরবেন। এই প্রসঙ্গে ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে কোহলিকে সমর্থন জানালেও এটা জানাতে ভুললেন দেশের সেরা খেলোয়াড়ের অনুপস্থিতিতে বিপাকে পড়তে হবে ভারতীয় দলকেই। টুইটও করেন ভোগলে। আর তার এই টুইটের পরই নেটিজেনদের একাংশ আবার সমালোচনায় মুখর হন।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে জিভার জন্মের সময় ভারতীয় দলের অধিনায়ক ছিলেন ধোনি। সেসময় বিশ্বকাপ খেলতে অস্ট্রেলিয়া পাড়ি জমিয়েছিল ভারতীয় দল। অজিদের বিরুদ্ধে ওয়ার্ম আপ ম্যাচের দু’‌দিন আগে অর্থাৎ ৬ ফেব্রুয়ারি জন্মেছিল জিভা। এই প্রসঙ্গে সাংবাদিকরা ধোনিকে প্রশ্ন করেন, এই সময় দেশে থাকতে না পারছেন না বলে তাঁর খারাপ লাগছে কি না?‌ জবাবে মাহি স্পষ্ট জানান, ‘‌‘‌একদমই না। আমি এখন দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে চলেছি। বিশ্বকাপটা আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাকি সবকিছুর জন্য পরে সময় রয়েছে।’‌’‌ ধোনির এই বক্তব্যটিকে তুলে ধরেই বিরাটকে খোঁচা দিতে থাকেন নেটিজেনরা। যদিও এখনও পালটা কোনও জবাব দেননি ভারতীয় অধিনায়ক।

Related Articles

Back to top button
Close