fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দেওয়াল ধসে মৃত ১, আহত ১

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: দেওয়াল চাপা পড়ে এক মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ালো  শিলিগুড়ি সংলগ্ন ফুলবাড়ি এলাকায়। শুক্রবার গভীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ির অদূরে ফুলবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার সাহুডাঙির অধিকারপল্লি এলাকায়। মৃতার নাম মেহেরুন্নেসা (৪০)। মহিলার মা পশিমন খাতুন (৭০) গুরুতর আহত হন। তাদের উদ্ধার করে উত্তর বঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে শিলিগুড়ি মেট্রোপলিটন পুলিশের নিউ জলপাইগুড়ি থানার পুলিশ সহ রাজগঞ্জের বিডিও এন সি শেরপা, জেলা পরিষদের সদস্য দেবাশিস প্রামাণিক, তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি তপন সিংহ, শ্রমিক নেতা ইয়ানুল হক ( মুন্সি ) সহ অন্যান্যরা।

স্থানীয় বাসিন্দাদের মতে গতকাল রাতে প্রবল বৃষ্টি হয় তখন আচমকাই গোডাউনের সীমানা প্রাচীর ভেঙে একটি বাড়ির ওপর পড়ে। তখন বাড়ির সবাই ঘুমিয়েছিল৷ দেওয়ালে চাপা পড়ে ওই বাড়ির ৪০ বছরের মহিলার ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। আহত হন মহিলার মা। স্থানীয়রা মিলে অনেক চেষ্টায় টেনে বের করে৷ এছাড়া আরও চারটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয় বলে অভিযোগ । একটি বাড়ির লোকজন গাছের মধ্যে দেওয়াল আটকে থাকায় অল্পের জন্য রক্ষা পায়। অধিকারপল্লিতে একটি বেসরকারি গোডাউন রয়েছে । গোডাউনের প্রাচীরের পাশে রয়েছে প্রচুর বাড়ি । মাঝে মাঝেই প্রাচীরের একাংশ ভেঙে পড়ে ।

তাই একাধিকবার প্রাচীর মজবুত করার দাবিতে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন অধিকারপল্লির বাসিন্দারা । কিন্তু অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি বলে অভিযোগ । এদিন রাত সাড়ে ১১ টার পর প্রাচীরের একাংশ ফের হুড়মুড়িয়ে বাড়ির উপর ভেঙে পড়ে । ক্ষিপ্ত বাসিন্দারা গোডাউনে তালা মেরে দিয়েছেন ।

শনিবার সকালে ঘটনাস্থলে পৌঁছান রাজগঞ্জের বিডিও এনসি শেরপা সহ জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদের কর্মাধক্ষ্য দেবাশীষ প্রামানিক। বিডিও বলেন, এর আগেও তিনটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয় সেই সময় গ্রাম পঞ্চায়েতের মাধ্যমে মালিককে কাজ বন্ধ করে রেখে মজবুত করে কাজ করার কথা বলা হয়েছিল। তার মধ্যেই গতরাতের বৃষ্টিতে প্রাচীরের দেওয়ালে অনেকখানি অংশ ভেঙে পড়ে। আজ জেলাশাসক ও মহকুমা শাসকের সাথে কথা হয়েছে। পুরো দেওয়াটাকে ভাঙার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। দেবাশীষ প্রামাণিক বলেন, এখানে অবৈধভাবে একটি গোডাউনের সীমানা প্রাচীর করা হয়েছে। চারটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আর একটি বাড়ির একজনের মৃত্যু হয় আরও একজন গুরুতর আহত হয়। সকালেই পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের সাথে ও জেলাশাসকের সাথে কথা হয়েছে এখানে আর প্রাচীর করতে দেওয়া যাবে না। পুরো প্রাচীরটাই ভাঙা হবে। ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত গোডাউন আর খুলতে দেওয়া হবে না। পাশাপাশি তার আরও অভিযোগ এই গোডাউনের মালিক অজয় গোয়েল সামনের একটি ঝোড়াকেও অবৈধভাবে দখল করে নিচ্ছে। এছাড়া রেললাইন ঘেষে প্রাচীর দিচ্ছে যার ফলে রেললাইনে ধস শুরু হয়েছে। এ ব্যাপারে গোডাউনের মালিক অজয় গোয়েল জানান, প্রাচীর মজবুত করেই করা হচ্ছে। স্থানীয়রা প্রাচীরের সামনে কুয়োর রিং পাতার জন্য মাটি খোড়ার ফলে প্রাচীর আলগা হয়ে পড়ে যায়। ঝোড়া দখল করার ব্যাপারে তিনি বলেন ঝোড়াটার দুই পাড় পাকা করে বাধিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। কোনো দখলের বিষয় নেই। ইতিমধ্যে গোডাউনের মালিকের বিরুদ্ধে নিউজলপাইগুড়ি থানায় নিহত পরিবারের তরফে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে। গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফেও অভিযোগ জানানোর কথা। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button
Close