fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দেশের জন্য ছেলের আত্মত্যাগে আমরা গর্বিত, জানালেন শহিদ কর্ণেল সন্তোষ বাবুর বাবা-মা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-চিন সামীন্তে সম্মুখসফরে বীরের মৃত্যু বরণ করেছেন কর্ণেল সন্তোষ বাবু। গত সোমবার চিনা সৈনিকের হাতে প্রাণ যায় এই বীর জওয়ানের। খবর পাওয়ার পরেই শোকস্তব্ধ এই বীর জওয়ানের পরিবার।

সন্তোষ বাবু’র মা জানিয়েছেন, প্রথম আমাকে এই খবর দেয় আমার পুত্রবধূ, সন্তোষের স্ত্রী। সন্তোষ দিল্লিতে স্ত্রী ও তার দুই সন্তানকে নিয়ে থাকত। গত মঙ্গলবার দুপুর ২ টো নাগাদ দিল্লি থেকে ফোনে পুত্রবধূ এই খবর জানায়। তবে ছেলের এই আত্মত্যাগে অত্যন্ত গর্বিত ও আর পাঁচজন মায়ের মতো ব্যথিত বলে জানিয়েছেন কর্ণেলের মা।

শহিদ বীর জওয়ান সন্তোষ বাবুর মা জানিয়েছেন, ছেলের হায়দরাবাদে ট্রান্সফার হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু লকডাউনের কারণে সেটি স্থগিত হয়ে যায়। সন্তোষ জানিয়েছিল খুব শীঘ্র বাড়ি ফিরবে সে। আমরাও খুব খুশি ছিলাম।

কিন্তু এর পাশাপাশি ছেলের এই মৃত্যুতে গর্বিত বলে জানিয়েছেন কর্ণেল সন্তোষ বাবুর বাবা এসবিআই-এর অবসরপ্রাপ্ত ম্যানেজার উপেন্দ্র। ছেলের কথা বলতে গিয়ে দুজনেই জানিয়েছেন, একদিকে যেমন আমরা আমাদের ছেলেকে হারিয়েছি, অন্যদিকে তাঁর দেশের প্রতি এই আত্মত্যাগে আমরা গর্বিত।

বাবা-মা দুজনেই জানিয়েছেন, ছোট থেকে খুব মেধাবী ছিল সন্তোষ। কারুকোন্ডা সৈনিক স্কুলে তার পড়াশোনা। পরে পুনে ও দেরাদুনে ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমিতে ট্রেনিং নেয়। ২০০৪-এ তার প্রথম পোস্টিং হয় কাশ্মীরে। অত্যন্ত কর্মদক্ষতার জন্য মাত্র ৩৭ বছর বয়সেই সন্তোষ কর্ণেলের পদ পায়।

সন্তোষ বাবু ১৬তম বিহার ব্যাটেলিয়নে ছিলেন এবং এক বছর আগে তাকে চিন সীমান্তে মোতায়েন করা হয়।

Related Articles

Back to top button
Close