fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

‘কৃষি আইন আমরা প্রত্যাহার করিয়েই ছাড়ব’, দাবি কৃষকদের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কৃষি আইন নিয়ে বিক্ষোভ জোরালো হচ্ছে। আর এই নতুন তিন কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে অনড় কৃষকরা। জানা গিয়েছে, বুধবার তাঁদের আন্দোলন ২০ দিনে পড়ল। কৃষকরা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, কেন্দ্রকে এই আইন রদ করতেই হবে। এই দাবিতে তাঁরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। বুধবার দিল্লি ও নয়ডা মধ্যবর্তী চিল্লা বর্ডার পুরোপুরি অবরুদ্ধ করার ডাক দিয়েছেন কৃষকরা। নয়া আইন কোনওভাবেই মেনে নেওয়া হবে না বলে বারবার হুঁশিয়ারি দিচ্ছে কৃষক সংগঠনগুলি।

 

তাদের দাবি, ইতিমধ্যেই ২০ জন কৃষকের প্রাণ গিয়েছে। এর সম্পূর্ণ দায় কেন্দ্রের। আগামী ২০ ডিসেম্বর প্রয়াত ২০ জনকে স্মরণ করে গ্রামে গ্রামে শ্রদ্ধাজ্ঞাপণ কর্মসূচিও নেওয়া হয়েছে।  মঙ্গলবার গুজরাটের একটি মঞ্চ থেকে নরেন্দ্র মোদি অভিযোগ করেন কৃষকদের ভুল পথে চালিত করছে বিরোধীরা। তিনি বলেন, “কৃষি আইনে যে সংশোধন আনা হয়েছে তা কৃষক সংগঠনগুলি ও বিরোধী দলগুলি অনেক আগে বছর ধরেই চেয়ে আসছিল।” এর পাশাপাশি মোদি এও জানান, ভারত সরকার সব সময় কৃষকদের স্বার্থের পক্ষেই। কৃষকদের সব সমস্যার সমাধান করবে সরকার, এমনটাও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরে কৃষি আইনের এই সংশোধন চেয়ে এলেও এখন উল্টো সুরে কথা বলছে বিরোধীরা। যার মাধ্যমে ভুল পথে চালিত হচ্ছেন কৃষকরা।

 

গত মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার জানিয়েছেন, ‘প্রকৃত কৃষক সংগঠন’গুলির সঙ্গে আলোচনা এবং সমাধানে পৌঁছনোর সবরকম প্রচেষ্টা চলছে। কৃষক নেতা জগজিৎ ডাল্লেওয়ালের কথায়, “সরকার বলছে ওরা এই আইন প্রত্যাহার করবে না। আমরা বলছি, এই আইন প্রত্যাহার করিয়েই ছাড়ব। এই লড়াই অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে। আমরা এখন জেতার জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আলোচনা তো অনেক হল। কিন্তু আমাদের দাবিটা সরকারকে মাথায় রাখতে হবে।” আগামী তিন-চারদিনে আরও বহু সংখ্যক কৃষক এই আন্দোলনে যোগ দিচ্ছেন বলেও আগাম জানিয়ে রেখেছেন তিনি।

 

Related Articles

Back to top button
Close