fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে কড়া ভাষায় চিঠি অমিত শাহের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানো নিয়ে রাজ্যের সঙ্গে কেন্দ্রের সংঘাত অব্যাহত। ভিন রাজ্যের শ্রমিকদের ফেরাতে অন্যান্য রাজ্যের সরকার উদ্যোগ নিলেও পশ্চিমবঙ্গ সরকার প্রকৃত উদ্যোগ নিচ্ছে না বলেও বার বার আঙুল উঠেছে। পাল্টা কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই অবস্থায় আসলে নামলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি পাঠালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সূত্রে জানা গেছে, চিঠিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী লিখেছেন কেন্দ্র সরকার ২ লক্ষ শ্রমিককে ঘরে ফেরাতে সাহায্য করেছে। বাংলার শ্রমিকরাও তাঁদের বাড়ি ফিরতে চাইছেন। ওঁদের সাহায্য করুন। নাহলে অবিচার করা হচ্ছে ওঁদের সঙ্গে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে বলা হচ্ছে, অমিত শাহ রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গের থেকে যে ধরনের সাহায্য আশা করা হয়েছিল তা পাওয়া যাচ্ছে না। অনেক রাজ্য রয়েছে যারা বাংলার শ্রমিকদের ফেরাতে আগ্রহী। তাদের তরফে পশ্চিমবঙ্গের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হচ্ছে। কিন্তু কোনও উত্তর নেই।

উল্লেখযোগ্য, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাত, মহারাষ্ট্র, দিল্লি, থেকে কোনও শ্রমিককে ফেরানোর ব্যাপারে এখনও কোনও ইঙ্গিত দেয়নি নবান্ন। রাজ্যের এই উদাসীনতায় তোপ দেগেছেন কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরীও। পাশাপাশি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষও এই নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। এমনকী তিনি বলেছেন, রাজ্য সরকার না পারলে বলে দিক, বিজেপি নিজের খরচে ফেরানোর ব্যবস্থা করবে।

এদিকে আগামী ৯, ১০ এবং ১১ মে আরও কিছু শ্রমিককে ফেরাতে নবান্ন আটটি ট্রেনের ব্যবস্থা করছে বলে খবর। ওই সব স্পেশাল ট্রেনের একটি খসড়া তৈরি করা হয়েছে। নবান্নের ওই খসড়া থেকে জানা গিয়েছে, আটটি ট্রেন ছাড়বে যথাক্রমে চণ্ডীগড়, জলন্ধর, বেঙ্গালুরু, ভেলোর ও হায়দরাবাদ স্টেশন থেকে।

নবান্ন সূত্রে বলা হচ্ছে, মূল সমস্যা হল, রাজ্যে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থার পরিধি কম। প্রচুর শ্রমিককে একসঙ্গে ফেরালে রাখা একটা সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে। কোথায় থাকবে তারা। সেই খরচ কে দেবে। পাশাপাশি রয়েছে সংক্রমণ ছড়ানোর ঝুঁকি রয়েছে। তবে রাজ্য সরকারের বক্তব্য, ধীরে ধীরে সমস্ত শ্রমিককেই ফেরানো হবে।

Related Articles

Back to top button
Close