fbpx
কলকাতাহেডলাইন

বাংলায় বেকারত্বের হার দেশের অন্য রাজ্যের তুলনায় ভাল, তথ্য দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  করোনার আবহে দেশজুড়ে বেড়েছে বেকারত্ব। তবে বাংলায় সেই বেকারত্বের হার অনেকটাই কম বলে দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় । টুইটার হ্যান্ডেলে সেন্টার ফর মনিটরিং ইন্ডিয়ান ইকোনমির পরিসংখ্যান তুলে ধরে বিজেপিশাসিত উত্তরপ্রদেশ ও হরিয়াণাকেও বিঁধেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন টুইট করে তিনি জানান, জুন মাসে রাজ্যে বেকারত্বের হার ৬.৫ শতাংশ। এই হার সারা দেশের বা অন্য রাজ্যের তুলনায় অনেকটাই বেশি। মুখ্যমন্ত্রী জানান, জুন মাসে সারা দেশে বেকারত্বের হার প্রায় ১১ শতাংশ। অর্থাৎ রাজ্যের দ্বিগুণ। পাশাপাশি, এই হার উত্তরপ্রদেশে ৯.৬ শতাংশ, হরিয়ানায় ৩৩.৬ শতাংশ। এর থেকেই স্পষ্ট করোনা ও আমফান সত্ত্বেও রাজ্য সরকার কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে কেমন পদক্ষেপ করেছে। সারা দেশের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গ অনেক ভাল জায়গায় রয়েছে।” একইসঙ্গে সেই পরিসংখ্যান তুলে ধরে উত্তরপ্রদেশ  ও হরিয়াণাকে কটাক্ষ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী আরও লিখেছেন, করোনা সংক্রমণের ফলে তৈরি হওয়া সংকট এবং উপরন্তু ঘূর্ণিঝড় আমফান-এই দুইয়ের মোকাবিলায় রাজ্য সরকার যে বলিষ্ঠ অর্থনৈতিক পদক্ষেপ নিয়েছে এটা তারই ফল।

উল্লেখ্য, গতমাসে এই বেকারত্বের হার ছিল প্রায় সাড়ে ২৩ শতাংশ। সেখান থেকে এক মাসের মধ্যে অনেকটাই কমেছে এই হার। সেই একই অবস্থা রাজ্যের ক্ষেত্রেও। ইতিমধ্যেই রাজ্যের পক্ষ থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের কর্মসংস্থানের জন্য একাধিক উদ্যোগ করা হয়েছে। ১০০ দিনের কাজ-সহ একাধিক ক্ষেত্রে এদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: লকেটকে ফোন মুখ্যমন্ত্রীর! ‘বড় দিদি হিসেবে পাশে সবসময় আছি’ আশ্বাস মুখ্যমন্ত্রীর

সিএমআইই-র রিপোর্ট বলছে, জুন মাসে যোগী আদিত্যনাথের উত্তরপ্রদেশে বেকারত্বের হার ৯.৬ শতাংশ। আর দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বেকারত্ব মনোহর লাল খাট্টার শাসিত হরিয়ানায়। সেখানে জুন মাসে বেকারত্ব ৩৩.৬ শতাংশ। অর্থাৎ ১০০ জনের মধ্যে ৩৩ জনের বেশি মানুষের হাতে কোনও কাজ নেই। রিপোর্ট অনুযায়ী, বেকারত্বে উত্তরপ্রদেশকে টেক্কা দিয়েছে পাঞ্জাব, ছত্তিশগড় ও রাজস্থান। কিন্তু তিনটি রাজ্যর উল্লেখ নেই মুখ্যমন্ত্রীর টুইটে। এমনকী, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী সিপিএমশাসিত কেরলের বেকারত্ব নিয়েও কোনও কথা বলেননি মুখ্যমন্ত্রী। ফলে মুখ্যমন্ত্রীর এই বার্তার পিছনে বিশেষ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।।

Related Articles

Back to top button
Close