fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পশ্চিম বর্ধমান জেলায় ক্রমশ বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, মোট করোনা রোগী ৮৪

শুভেন্দু বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল: পশ্চিম বর্ধমান জেলায় আরও একজন করোনা আক্রান্তর হদিশ মিলল৷ আসানসোলের হিরাপুর থানার বার্ণপুরের সূর্যনগরের ঢাকেশ্বরী রিফিউজি কলোনির বাসিন্দা বছর ৪০ এর এক যুবক করোনায় আক্রান্ত বলে মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়। এরপরই ওই যুবককে বাড়ি থেকে তুলে স্বাস্থ্য কর্মীরা দূর্গাপুরের কোভিড ১৯ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বার্ণপুরের এই যুবক দিল্লিতে কাজ করতেন। গত ৩ জুন সে দিল্লি থেকে ফিরে আসেন৷ আসানসোলের সেনরেল রোডের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে, তাকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলা হয়।

এদিন যুবকের করোনা পজিটিভ আসায় তার স্ত্রী ও ছেলেকে হোম কোয়ারেন্টাইনে
থাকতে বলা হয়েছে। তাদের লালরস পরীক্ষার জন্য নেওয়া হবে। তবে এই কদিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকাকালীন ওই যুবক বাড়ি থেকে বেরোননি। আসানসোল পুরনিগমের তরফে ওই যুবকের বাড়ির এলাকা স্যানিটাইজেশন করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এদিকে, আসানসোল জেলা হাসপাতালের প্যাথোলজি বিভাগের ” ট্রুনেট ‘ মেশিনে সোমবার যাদের লালরসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিলো, তাদের মধ্যে তিনজনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে বলে মঙ্গলবার জানা যায়। তিনজনই আসানসোলের কুলটি থানা এলাকা বাসিন্দা। তারমধ্যে একজন আসানসোল জেলা সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের নিরাপত্তা রক্ষী। গোটা বিষয়টি জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দফতরকে জানানো হয়েছে। প্রাথমিক পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসায় স্বাস্থ্য দফতর তাদেরকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলেছে। এদিনই আরও একবার স্বাস্থ্য কর্মীরা এই তিনজনের লালারস বা সোয়াব পরীক্ষার জন্য নিয়েছে। সেই লালারস দূর্গাপুরের কোভিড ১৯ হাসপাতালে পরীক্ষা করা হবে। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এলে, ধরে নেওয়া হবে, তারা করোনা আক্রান্ত। তখন তাদেরকে চিকিৎসার জন্য কোভিড ১৯ হাসপাতালে ভর্তি করা হবে।

এদিকে, নিরাপত্তা রক্ষীর লালারস প্রাথমিক পরীক্ষায় পজিটিভ আসায়, জেলা হাসপাতাল কতৃপক্ষ সব রকম সতর্কতা অবলম্বন করেছে বলে জানা গেছে।

অন্যদিকে, সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত দূর্গাপুরের কোভিড ১৯ হাসপাতালে নতুন করে ১৫ জন ভর্তি হয়েছে বলে জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে। কোন মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি বা কাউকে ছুটি দেওয়া হয়নি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাতটার পরে জেলা স্বাস্থ্য দফতর জানিয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। জেলায় এখন মোট করোনা আক্রান্তর সংখ্যা ৮৪ জন। তারমধ্যে এক্টিভ রয়েছে ৪২ জন।

Related Articles

Back to top button
Close