fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খকলকাতা

করোনা আবহে কবে থেকে শুরু স্নাতকের ক্লাস? জানাল উচ্চশিক্ষা দফতর

নিজস্ব প্রতিনিধি: করোনা পরিস্থিতিতে প্রচুর বিধি-নিষেধ জারি থাকলেও তার অনেকটাই শিথিল করা হয়েছে। কিন্তু স্কুল- কলেজ কবে খুলবে সে ব্যাপারে দিনক্ষণ এতদিন জানা যায়নি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার প্রয়োজনীয়তার কথা বারবার বলেছে সংশ্লিষ্ট মহল। অবশেষে প্রতীক্ষার অবসান। আগামী মাস থেকে রাজ্যে শুরু হতে চলেছে স্নাতকের ক্লাস। এমনটাই জানা গিয়েছে রাজ্য উচ্চশিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী আট নভেম্বর থেকে শুরু হতে পারে ক্লাস। তবে কোভিড নিয়ন্ত্রণের মধ্যে না থাকলে ক্লাস হবে অনলাইনে।

মারণ করোনা ভাইরাসের দু’টি ঢেউয়ে  পুরোপুরি বিপর্যস্ত শিক্ষা ব্যবস্থা। গত বছর মার্চ থেকে বন্ধ রাজ্যের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। চলতি বছরে সরস্বতী পুজোর সময় কিছুদিন নবম থেকে দ্বাদশের ক্লাস হলেও বন্ধই আছে স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের ক্লাস। উচ্চশিক্ষায় কবে থেকে ক্লাস শুরু তা অভিভাবক থেকে পড়ুয়া, জানতে চায় সব মহল। তবে সাম্প্রতিক কালে করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণের মধ্যে এসেছে। এরপর থেকেই বিধি-নিষেধে বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে। তবে পুজোর পর করোনা সংক্রমণের হার নতুন করে বাড়তে শুরু করেছে। তবে মোটের উপর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণেই বলে মনে করছে নবান্ন। তাই কলেজ খোলার ব্যাপারে মোটামুটি মনস্থির করে ফেলেছে শিক্ষা দফতর। এই প্রসঙ্গে উচ্চশিক্ষা দফতরের এক কর্তা জানিয়েছেন, “করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে আট নভেম্বর থেকে স্নাতকের ক্লাস শুরু হতে পারে। কোভিড নিয়ন্ত্রণের মধ্যে না থাকলে ক্লাস হবে অনলাইনে।”

এদিকে গত বছরের মতো এবারও স্নাতকে ভর্তির আবেদনের জন্য ফি লাগেনি। ২ আগস্ট প্রথম বর্ষে অনলাইনে ভর্তির আবেদন শুরু হয়। ৩১ আগস্ট প্রকাশ হয় মেধা তালিকা। বিএ, বিএসসি, বিকম অনার্স বা জেনারেলের ভর্তি শেষ হয় ৩০ সেপ্টেম্বর। অক্টোবর থেকে প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরুর কথা ছিল। তবে পুজোর মাসে তা কার্যকর হয়নি। আগামী মাস থেকে অনলাইনে, নাকি ছাত্র-ছাত্রীদের শারীরিক উপস্থিতিতে ক্লাস হবে তা এখনও ঠিক হয়নি।

২৫ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে পড়ুয়াদের কোর্স সংক্রান্ত নথি জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। কলেজ অধ্যক্ষদের এই বিষয়ে চিঠিও পাঠানো হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নির্দেশে পুরো ব্যবস্থাটি হবে অনলাইনে। রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ায় কোনও ছাত্র বা শিক্ষককে বিশ্ববিদ্যালয়ে আসতে হবে না। গত বছরের মতো এবারও স্নাতকে  ভর্তিতে ছাত্র-ছাত্রীদের কাউন্সেলিং হয়নি। ব্যাঙ্কের মাধ্যমে বা অনলাইনে ভর্তির টাকা   জমা নেওয়া হয়েছে। তাই আপাতত অপেক্ষার পালা। নতুন করে করোনা ভয়ঙ্কর রূপ না নিলে কলেজ  খুলতে চলেছে বলা যেতেই পারে।

Related Articles

Back to top button
Close