fbpx
একনজরে আজকের যুগশঙ্খগুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

টিকাকরণে ১০০ কোটির মাইলফলক ছোঁয়ায় টুইটে মোদীকে শুভেচ্ছা হু-এর প্রধানের

নিজস্ব প্রতিনিধি: ভারতের টিকাকরণ নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগে সরব হয়েছিল বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। বিভিন্ন ইস্যুতে প্রচুর সমালোচনা শুনতে হয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। কিন্তু নিঃশব্দে টিকাকরণের গতি বেড়েছে দেশে। সেই সূত্রে কোভিড টিকাকরণে নতুন মাইলফলক পেরিয়েছে ভারত। বৃহস্পতিবার ১০০ কোটি টিকাকরণ হয়ে গিয়েছে দেশে। এই কৃতিত্বের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে শুভেচ্ছা জানালেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)-এর প্রধান টেড্রস আধানম।

এদিন টুইট করে টেড্রস বলেন, ‘টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ এবং এত বিশাল জনসংখ্যাকে অতিমারির হাত থেকে রক্ষা করার প্রচেষ্টার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, বিজ্ঞানী, স্বাস্থ্যকর্মী এবং ভারতের জনগণকে শুভেচ্ছা।’ এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে ১০০ কোটি টিকাকরণ সম্পূর্ণ হতেই প্রধানমন্ত্রী টুইট করে বলেন, ‘ভারত ইতিহাস রচনা করল। দেশের বিজ্ঞানের জয় দেখলাম আমরা। ১৩০ কোটি দেশবাসীর একতার সাক্ষী থাকলাম। ১০০ কোটি টিকাকরণ সম্পূর্ণ হল দেশে। চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী এবং এই বিশাল কর্মযজ্ঞে সামিল সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই।’ তার জবাবেই টুইট করেন হু-এর প্রধান।

নিঃসন্দেহে টিকাকরণে ভারত এক অনন্য নজির স্থাপন করল। উল্লেখ্য ভারতই একমাত্র দেশ, যারা এই মাইলফলক স্পর্শ করেছে। অন্য কোনও দেশ এর ধারে কাছে নেই। এই অবস্থায় এদিন ফের আড়াই কোটি টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে কেন্দ্র। এর আগে গত ১৭ সেপ্টেম্বর এক দিনে আড়াই কোটি টিকাকরণ করে রেকর্ড করেছিল দেশ।

ঘটনাচক্রে সেদিন ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ৭১তম জন্মদিন। উল্লেখ্য চিকিৎসকরা বারবার বলছেন করোনাকে হারাতে গেলে সবচেয়ে জরুরি দ্রুত হারে টিকাকরণ। গত জানুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময় দেশে টিকাকরণ প্রক্রিয়া শুরু হয়। কয়েক মাস পর টিকার চাহিদা তুঙ্গে ওঠে। তখন রাজ্যগুলি টিকা পাচ্ছে না বলে অভিযোগ ওঠে। সেই ইস্যুতে বিরোধীরা সরব হয় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী তাঁর লক্ষ্য স্থির রাখেন। মোদির হাত ধরে সূচনা হয় টিকা উৎসবের। একটা সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন প্রত্যেকটি রাজ্য বিনামূল্যে টিকা পাবে। এর জন্য তাদের অর্থ ব্যয় করতে হবে না। তারপর থেকেই টিকাকরণের গতি দিন দিন বাড়তে থাকে। এবার টিকাকরণে একশো কোটির মাইলফলক স্পর্শ করল দেশ।

Related Articles

Back to top button
Close