fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কলকাতা থেকে এসে জিটিএ-র প্রশাসক কেন হোম কোয়ারান্টাইনে নেই? প্রশ্ন রাজুর

সঞ্জিত সেনগুপ্ত, শিলিগুড়ি: যে অস্ত্রে দার্জিলিংয়ের সাংসদ রাজু বিস্তের পাহাড়ে ওঠার প্রশ্ন তুলেছিলেন, বিনয় তামাং পন্থী মোর্চা নেতাদের সেই কোয়ারান্টাইন অস্ত্রেই আক্রমণ করলেন দার্জিলিংয়ের সাংসদ। সম্প্রতি কলকাতায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঢাকা সর্বদলীয় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জিটিএ-র প্রাক্তন চেয়ারম্যান এবং বর্তমান প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান। কলকাতায় মিটিং করে এসে তাঁরা দুজনেই পাহাড়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন। আর এনিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন সংসদ রাজু বিস্ত। তাঁর প্রশ্ন, ‘ করোনা সংক্রমণে কলকাতাকে রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে। সেখান থেকে আসার পর জিটিএ-র প্রাক্তন চেয়ারম্যান এবং বর্তমান প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান কেন ১৪ দিনের হোম কোয়ারান্টাইনে নেই?’

সোমবার এক প্রেস বিবৃতিতে রাজু বিস্ত বলেন, ‘ আমি দিল্লি থেকে ২৮ মে ফেরার পর জেলাশাসকের কাছ থেকে করোনা প্রটোকল জেনে নিয়ে ১৪ দিনের হোম কোয়ারান্টাইনে ছিলাম। তারপরও আমার গতিবিধি নিয়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের থেকে প্রশ্ন তোলা হয়েছিল। শুধু তাই নয় রাজ্য সরকারের নির্দেশ মতো উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ থেকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়েই আমি সাধারণ মানুষের মধ্যেই মিশেছিলাম। তাহলে এক্ষেত্রে বিনয় তামাং পন্থী মোর্চার দুই শীর্ষ নেতা কেন করোনা প্রটোকল মেনে ১৪ দিনের হোম কোয়ারান্টাইনে থাকবেন না? করোনা প্রটোকল সবার ক্ষেত্রে সমানভাবে প্রযোজ্য হবে।
দার্জিলিংয়ের সাংসদের এই প্রশ্নে বিরোধী শিবির এবং প্রশাসন অস্বস্তিতে পড়ে গিয়েছে। যদিও এ ব্যাপারে তাদের কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে রাজু বিস্ত এনিয়ে সরব হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনিক স্তরে ভাবনা-চিন্তা শুরু হয়েছে বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close