fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বুনো শুয়োর ও হাতির উপদ্রবে ব্যাপক ক্ষতির মুখে বাঁকুড়ার ধান চাষীরা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউন এর ফলে অনেকেই কাজহারা, তাদের একমাত্র ভরসা কৃষিকাজ। সেই কৃষি কাজেও এবার জল ঢেলে দিচ্ছে মাঝেসাজেই হাতির দল।

বাঁকুড়া সোনামুখী জঙ্গলে প্রায় এক সপ্তাহ ধরে চল্লিশটি হাতির দল তাণ্ডব চালাচ্ছে যার ফলে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন এলাকার ধান চাষীরা। বিঘার পর বিঘা ধান জমি নষ্ট করে দিচ্ছে হাতির দলটি। হাতির দলকে বাগে আনতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে সোনামুখী বনদপ্তরের আধিকারিকদের। শুধু তাই নয় সোনামুখী জঙ্গল লাগোয়া বুড়িআঙ্গারি, মহেশপুর, মানিকবাজার, কাওরাসলী, সহ বিস্তীর্ণ এলাকার বাসিন্দারা হাতির আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন ।

ওই এলাকায় এক ধানচাষী স্বপন ঘোষ বলেন, লকডাউনে তাদের কাছে কাজ নেই, দুই থেকে চার বিঘা জমি তাদের বেশিরভাগ চাষীদেরই একমাত্র ভরসা ধান চাষ। কিন্তু হাতির দল তার দুই বিঘা জমি নষ্ট করে দিয়েছে, শুধু তাই নয় বন শুয়োরের উপদ্রব সন্ধ্যে থেকে। সেখানেও তাদের প্রতিনিয়ত ক্ষতির মুখে পড়তে হচ্ছে. বনদপ্তরে জানানো হলে ক্ষতির জন্য কখনো পাঁচশ, হাজার টাকা দেওয়া হয় তা দিয়ে তারা কিভাবে সংসার চালাবেন.বনদপ্তর এর গাফিলতির অভিযোগ তুলছেন তারা।

এদিকে সোনামুখী বন আধিকারিক দয়াল চক্রবর্তী বলেন, হাতি এসে ধান নষ্ট করেছে এটা ঠিকই, কিন্তু বনদপ্তর এর কোনো গাফিলতি নেই, তারা চান না চাষির ক্ষতি হোক, তারা দ্রুততার সঙ্গে চেষ্টা করেছেন হাতি গুলি কে বের করে নিয়ে যাওয়ার এবং যাতে ওই এলাকায় আর না ঢোকে সেদিকেও নজর রেখেছেন, যাদের ক্ষতিপূরণ হয়েছে তাদেরকে তিনি বিডিও অফিসে একটি ফর্ম ফিলাপের জন্য অনুরোধ করেছেন সংবাদমাধ্যমের সামনে।

এছাড়া যত দ্রুত চাষীদের ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করা যায় তিনি সেদিকে নজর রেখেছেন এবং তিনি সাহায্য করবেন।

Related Articles

Back to top button
Close