fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

‘জ্যোতিপ্রিয় কোথায় দাঁড়াবেন শুধু বলুন, যে কেন্দ্রেই দাঁড়াবেন, ওঁকে হারিয়ে দেব’, চ্যালেঞ্জ দিলীপ ঘোষের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: একুশে লড়াইয়ের ওয়ার্ম-আপ করতে নেমে গিয়েছে সব রাজনৈতিক শিবির। প্রচারের উত্তাপ বাড়াচ্ছেন নেতা, মন্ত্রীরা। সোমবার বারাসতের চা-চক্র থেকে উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে  নিশানা করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ । তাঁর শ্লেষ, ”জ্যোতিপ্রিয় কোথায় দাঁড়াবেন শুধু বলুন। যে কেন্দ্রেই দাঁড়াবেন, ওঁকে হারিয়ে দেব। ওঁকে আর মানুষ চায় না।”

সোমবার তেমনই চা-চক্র ছিল বারাসতের  কলোনি মোড়ে। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের প্রায় গড়ই বলা চলে। আর সেখানে গিয়েই তাঁকে খোলাখুলি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন দিলীপ ঘোষ। ‘কাটমানি’ ইস্যুতেও তাঁকে বিঁধেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। পালটা জবাব দিতে অবশ্য ছাড়েননি খাদ্যমন্ত্রীও। সংবাদমাধ্যমে তিনি দিলীপ ঘোষের মন্তব্যকে কার্যত ‘পাগলের প্রলাপ’ বলে উড়িয়েছেন। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের জবাব, ”উনি পাগলের মতো কথা বলছেন। নিজেদের সংগঠনের জোর নেই অথচ আমাদের হারানোর কথা বলছেন। ভোটের আগে ওঁরাই রাজ্যে অশান্তি তৈরি করছে, অস্ত্র আমদানি করছেন।”

আরও পড়ুন: ‌’ভোটের সময় রাহুল সিমলায় পিকনিক করছিলেন, বেনজির আক্রমণ RJD নেতার

এদিন দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, ”৪৫ বছর ধরে কেন্দ্র দিচ্ছে না, দিচ্ছে না, বলে যেতে হচ্ছে বাংলাকে। এক বার সুযোগ দিন। আমরা বাংলাকে গুজরাত বানাবো। যাতে বাংলার মানুষকে পরিযায়ী শ্রমিক হয়ে গুজরাতে না যেতে হয়। দিদিমনির পাপের বোঝা বাংলাকে বইতে হচ্ছে…।” আজ, সোমবার সকালে বারাসতে চায়ে পে চর্চায় এসে দিলীপ ঘোষ কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি অভিযোগ করেন, তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর রাজ্যের কোনও পরিবর্তন হয়নি। যা কিছু হয়েছে শুধুমাত্র দিদির ভাই আর ভাইপোর হয়েছে। কেন্দ্র কৃষকের জন্য প্রকল্প নিয়েছে । সারা দেশের কৃষক সেই প্রকল্পের সুযোগ পাচ্ছে। বঞ্চিত হচ্ছে শুধুমাত্র এ রাজ্যের কৃষকরা।একুশে এ রাজ্যে ২০০ আসন দখলের লক্ষ্যে লড়তে নামা বিজেপি নেতৃত্ব যে এভাবেই ক্রমশ সুর চড়াবেন, তা স্পষ্ট। তবে শাসকশিবির কীভাবে এর মোকাবিলা করে, সেটাই দেখার।

Related Articles

Back to top button
Close