fbpx
দেশহেডলাইন

স্বামী ঝগড়া করেন না,খুব ভালোবাসে, বিচ্ছেদের আবেদন চেয়ে আদালতের দ্বারস্থ স্ত্রী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের সমভল জেলার বাসিন্দা এক মহিলা তাঁর স্বামীর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ চান। কারণ যদি জানেন তবে আপনিও অবাক হবেন। এও কি হয় বাস্তবে! কথায় বলে বোবার শত্রু নেই! কিন্তু বাস্তবে তা হল কোথায়! সাত চড়েও মুখে রা নেই। ভুল হলেও বকাবকির ধার ধারেন না। এমন স্বামীকেই ডিভোর্স দিতে চান উত্তরপ্রদেশের মহিলা। কারণ, অতিরিক্ত ভালবাসায় তাঁর নাকি দমবন্ধ হয়ে যাচ্ছে। আর তাই আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন মহিলা। কিন্তু আদালত পত্রপাঠ তাঁর আবেদন খারিজ করে দেয়। তাও নাছোড়বান্দা ওই মহিলা। পঞ্চায়েতের দ্বারস্থ হয়েছেন ওই মহিলা।

স্বামী তাঁর স্ত্রীকে প্রচণ্ড ভালোবাসেন এবং আজ পর্যন্ত কোনওদিন লড়াই করেননি। তাই তাঁর স্ত্রী বিবাহ বিচ্ছেদ চান। ওই মহিলা তাঁর বিয়ের ১৮ মাস পর শারিয়া আদালতে বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য দ্বারস্থ হয়েছেন। শারিয়া আদালত এ ধরনের আজব কারণ শোনার পর বিরক্তি প্রকাশ করে এবং মামলা নিতেও অস্বীকার করে। বিচারক পরবর্তীকালে এটিকে অবজ্ঞাপূর্ণ বলে এই আবেদন নাকচ করে দেয়। এখ সর্বভারতীয় হিন্দি পত্রিকা অনুযায়ী, আদালত এই মামলা খারিজ করার পর এই বিষয়টি স্থানীয় পঞ্চায়েতে যায় কিন্তু হাত তুলে নেয় পঞ্চায়েতও।

আরও পড়ুন: এও কি সম্ভব! ১৩ মাসে আট সন্তানের জন্ম দিলেন ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধা!

ছাড়বেন। মহিলার কথায়, “উনি আমায় অতিরিক্ত ভালবাসেন। কখনও ঝগড়া করেন না। আমি ভুল করলেও সবসময় হাসিমুখে ক্ষমা করে দেন। আমি এমন জীবন চাই না। মাঝে মাঝে তর্ক-বিতর্ক করতে চাই। এই অতিরিক্ত ভালবাসায় দমবন্ধ লাগে আমার। তাই বিচ্ছেদ চেয়েছি।” মহিলার স্বামী জানিয়েছেন, তিনি সবসময় স্ত্রীকে খুশি রাখতে চান। তাই এই ব্যবহার করেছেন। শরিয়া আদালত যাতে তাঁর স্ত্রীর পিটিশন খারিজ হয়ে যায় সেই জন্য আবেদন জানিয়েছেন ওই ব্যক্তি। অন্যদিকে পঞ্চায়েতের তরফেও ওই স্বামী-স্ত্রীকে বলা হয়েছে তাঁরা যেন নিজেদের মধ্যে ব্যাপারটা মিটিয়ে নেন। কিন্তু সেই মহিলা তো মোটেই মিটিয়ে নিতে রাজি নন!

Related Articles

Back to top button
Close