fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

স্বামীর অজুহাত স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন! ১ বছর ধরে বাথরুমে আটকে রেখে শাস্তি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: এক বছর ধরে নিজের স্ত্রীকে বাথরুমের মধ্যে আটকে রেখেছিলেন স্বামী। অবশেষে ওই মহিলাকে অচৈতন্য অবস্থায় উদ্ধার করল বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ এবং মহিলাদের সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা এক আধিকারিক।  ঘটনাস্থল হরিয়ানার পানিপথের ঋষিপুর গ্রাম৷ খবর পেয়ে ওই মহিলাকে উদ্ধার করে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ এবং মহিলাদের সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা অফিসার রঞ্জিত গুপ্ত।  ওই সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন যে, আটক হয়ে থাকা মহিলা অত্যন্ত দুর্বল হয়ে পড়েছিলেন৷ তাঁকে দেখে মনে হচ্ছিল যে, বেশ কিছুদিন কিছু খেতে দেওয়া হয়নি৷ অচৈতন্য হয়ে পড়েছিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন- টিআরপি কাণ্ডে তিনমাস রেটিং প্রকাশ করবে না বার্ক]

বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ এবং মহিলাদের সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা ওই আধিকারিক জানিয়েছেন যে, অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তিনি এবং তাঁর সহকর্মীরা দেখেন সত্যিই ওই মহিলাকে বাথরুমের মধ্যে বন্দি করে রাখা হয়েছে। এই ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী দাবি করেছে যে, তাঁর স্ত্রী মানসিক ভারসাম্যহীন। আর এই কারণেই তাঁকে বাথরুমে বন্দি করে রাখা হয়েছিল৷ পরিবারের সদস্যরা তাঁকে বারংবার বাইরে আসতে বললেও তিনি বাথরুম থেকে বেরোতেন না৷ চিকিৎসা করিয়েও কোনও লাভ হয়নি বলে দাবি করেছেন নরেশ৷ কিন্তু ওই সরকারি আধিকারিক জানিয়েছেন যে, মহিলার সঙ্গে কথা বলে তাঁকে মানসিক ভারসাম্যহীন মনে হয়নি। ঘটনায় মহিলার স্বামী নরেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷ নরেশের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে আশ্বস্ত করেছেন ওই সরকারি আধিকারিক৷

 

 

Related Articles

Back to top button
Close