fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পেট্রোল পাম্পের অনলাইন পরিষেবার কেলেঙ্কারিতে গ্রেফতার যুবক

মিল্টন পাল, মালদা: পেট্রোল পাম্পের অনলাইন পরিষেবার কেলেঙ্কারিতে গ্রেফতার যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে মালদা থানার নারায়নপুরের ৩৪নম্বর জাতীয় সড়ক সংলগ্ন কালুয়াদিঘি এলাকায়।মুলত ইউপিআই পেমেন্ট কেলেঙ্কারি করায় দুই যুবককে গ্রেপ্তার করে মালদা সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ। ধৃতদের শনিবার পুলিশি হেপাজতের আবেদন জানিয়ে মালদা জেলা আদালতে পাঠিয়ে তদন্ত শুরু করেছে সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ।

সাইবার ক্রাইম থানা সূত্রে জানা গিয়েছে,ধৃত দুই যুবকের নাম মহঃ তাবারক হোসেন(২১) ও মহঃ আসরাফুল হক(২৪)। তাদের বাড়ি গাজোল থানার রাজারামচকের গ্রামে। মালদা শহরের বাঁশবাড়ির বাসিন্দা রানা বিশ্বাসের একটি পেট্রোলপাম্প রয়েছে কালুয়াদিঘিতে। বেশ কয়েকদিন ধরে কিছু যুবক তাঁর পেট্রোলপাম্পে তেল ভরতে আসে। পাশাপাশি বিভিন্ন আছিলায় অনলাইন পরিষেবি ইউপি আই পেমেন্ট করে নগদ টাকা নিতে থাকে। বেশ কয়েকদিন ধরে এই ঘটনা চলতে থাকায় রানাবাবুর সন্দেহ হয়। শনিবার সকালে ফের দুই যুবক পেট্রোল নেওয়ার পাশাপাশি পরিবারের লোক অসুস্থ থাকার বাহানায় ইউপি আই পেমেন্ট করে নগদ টাকা চাই। এরপরেই রানাবাবু তাদের আটকায়। এরপর শুরু করে জিজ্ঞাসাবাদ। তাদের কাছ থেকে সদুত্তর না মেলায় তিনি তাদের আটকে রেখে মালদা থানায় পুলশকে খবর দেন।

আরও পড়ুন: যেন টলস্টয়ের দেশে শেক্সপিয়রের চিত্রনাট্য! নাভালনির চায়ে বিষপ্রয়োগ, বিরোধী হত্যার অভিযোগে উত্তপ্ত মস্কো

মালদা থানা মারফত খবর পেয়ে সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এরপর ওই দুই যুবকের মোবাইল থেকে বেশ কিছু ব্যাংক অ্যাকাউন্টের স্ক্রিনশট ও হোয়াটস অ্যাপে তথ্য আদানপ্রদান নজরে আসে। তল্লাশি চালাতেই উদ্ধার হয় নগদ ১ লক্ষ ৮৪ হাজার টাকা।এরপরই গ্রেফতার করা হয় দুই যুবককে। এদের মধ্যে একজন সিভিক ভলেন্টিয়ার রয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে।

রাণা বিশ্বাস বলেন, বেশ কয়েকদিন থেকে বিভিন্ন অযুহাত দেখিয়ে যুবকেরা টাকা নিচ্ছিল। এই ঘটনা ট্রাঞ্জাকশন বেশি হচ্ছিল। বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট থেকে সেই টাকা দিচ্ছিল। যেখানে কোন নাম দেখাছিল না। আমার মনে হচ্ছে কাউকে প্রতরনা করা হচ্ছে। বা এই টাকা অন্য কারো। তারা হ্যাক করে এই ঘটনা চালাচ্ছে। ফলে থানায় অভিযোগ করি। এরপর পুলিশ তাদের গ্রেফতার করেছে।
পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া জানিয়েছেন,বার অন লাইনে টাকা তোলার অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে এদের মুল মাথাকে বা কেন তারা টাকা এই ভাবে তুলছিল তার তদন্ত শুরু করা হয়েছে

Related Articles

Back to top button
Close