fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

নাবালিকা ছাত্রীর সিঁথিতে সিঁদুর লাগিয়ে শ্লীলতাহানি, গ্ৰেফতার অভিযুক্ত যুবক

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: নাবালিকার সিঁথিতে সিঁদুর লাগিয়ে দিয়ে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগে গ্ৰেফতার হল এক যুবক। ধৃতের নাম মানিক বাগ। তার বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের ভাতার থানার বলগোনা পঞ্চায়েতের ঢেঁরিয়া গ্রামে। শুক্রবার রাতে পুলিশ বাড়ি থেকে যুবককে গ্ৰেফতার করে। শনিবার ধৃতকে পেশ করা হয় বর্ধমান আদালতে। ভারপ্রাপ্ত সিজেএম কল্লোল ঘোষ ধৃতকে বিচার বিভাগীয় হেপাজতে পাঠিয়ে আগামী বুধবার পসকো আদালতে পেশের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, নাবালিকা ছাত্রীর বাড়ি ঢেঁরিয়া এলাকাতেই। সে স্থানীয় বৈষ্ণবডাঙা বিদ্যাপিঠে নবম শ্রেণীতে পড়ে। নাবালিকার বাবা লিখিত অভিযোগে পুলিশকে জানিয়েছেন , এলাকার বছর ২২ বয়সী যুবক মানিক বাগ দু’বছর ধরে তার নাবালিকা মেয়েকে উত্তক্ত করেছে। মেয়ে যখন প্রাইভেট টিউশন পড়তে কিংবা স্কুলে যায় তখন মানিক তার পথ আটকে উত্তক্ত করে। তাকে আপত্তিকর কথাবার্তা বলতো। মানিকের এমন আচরণ নাবালিকার বাবাও মেনে নিতে পারেননি। তিনি একাধিকবার মানিকের বাবাকে মনিকের কীর্তিকলাপের বিষয়ে জানিয়েছিলেন। কিন্তু কোন লাভ হয়নি।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নাবালিকা ছাত্রী টিউশন পড়তে যাচ্ছিল। অভিযোগ তখন মানিক জোরপূর্বক নিবালিকার সিঁথিতে সিঁদুর লাগিয়ে দিয়ে তার শ্লীলতাহানি করে। এই ঘটনা নিয়ে ছাত্রীর বাবা প্রতিবাদ করলে তাকেও মারধোর করা হয়। এরপরেই ছাত্রীর বাবা ঘটনা সবিস্তার উল্লেখ করে ভাতার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তার ভিত্তিতে মামলা রুজু করে পুলিশ মানিককে গ্ৰেফতার করে।

Related Articles

Back to top button
Close