fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

“অসহায় মানুষের পাশে আছি”, অভয় দিলেন রাজ্য যুব মোর্চার সাধারণ সম্পাদক

বাবলু ব্যানার্জি, কোলাঘাট: নির্বাচন যতই এগিয়ে আসবে রাজ্যের তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার চেষ্টা করবে। তার ইঙ্গিত আপনারা এখন থেকেই দেখতে পাচ্ছেন। যুব সম্প্রদায়দের ভয় দেখিয়ে দমিয়ে রাখা যাবেনা। প্রতিবাদ তারা করবেই, ২১ সালের নির্বাচনে ক্ষমতায় আসবে বিজেপি। ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার জন্য যুব সম্প্রদায়কে আহ্বান জানালেন রাজ্য যুব মোর্চার সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দাস। শুক্রবার  ঘাটাল ও কেশপুরে  দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার আগে দেউলিয়া বাজারে তমলুক জেলা যুব মোর্চার সাংগঠনিক সভাপতি প্রতীক পাখিরার নেতৃত্বে  সংবর্ধনা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছিল।  যুবদের উপস্থিতিতে তিনি বলেন তার কাছে খবর আছে দলীয় কর্মসূচিকে বানচাল করার জন্য শাসকদল নানা পন্থা পদ্ধতি অবলম্বন করছে। প্রশাসনকে বলা হয়েছে।

[আরও পড়ুন- দাবি মতো পণ না দেওয়ার মাশুল! আরও টাকার নেশায় স্ত্রীকে দেহ ব্যবসায় নামালো স্বামী]

প্রত্যেক রাজনৈতিক দলের গণতান্ত্রিক অধিকার আছে সভা সমিতি করার। তার জন্য আগাম অনুমতি নেওয়া হয়েছে,তবুও বানচাল করার চেষ্টা করছে শাসক দল। আসলে তৃণমূল ভয় পেয়েছে। অতি উৎসাহিত ভাবে দিকে দিকে  যেভাবে যুবদের ঢেউয়ের বহর উঠেছে শাসকদল সেটা দেখছে।এই বহরকে কমাতে পারবেন না  মাননীয়ার মদদপুষ্ট দুষ্কৃতীরা। তিনি বলেন, ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের সংসদ অভিনেতা দেব ঘাটাল মাস্টার প্ল্যান নিয়ে কি ভাবছেন। দুবার সাংসদ হয়ে গেলেন,দীর্ঘদিনের সমস্যা সমাধান কোথায় হল। বিজেপি ক্ষমতায় এসে তা করবে বলে তিনি জানান।

রাজ্য যুব মোর্চার সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দাস রাজ্যে ঘটে যাওয়া আমফান  নিয়েও শাসক দলকে সমালোচনা করতে থামেননি। তিনি বলেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছের ভাই জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক রেশন নিয়ে যা করলেন সবটাই রাজ্যের মানুষ দেখলেন, এর থেকে দুর্নীতি আর কি হতে পারে।  তমলুক জেলা সাংগঠনিক যুব মোর্চার সভাপতি  প্রতীক পাখিরা বলেন, দেউলিয়া বাজার থেকে মোটর সাইকেল র‍্যালি করে মেছোগ্রামে সংবর্ধনা দেয়ার পর পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার  প্রবেশদ্বার খুকুড়দহতে  নেতৃত্বদের ছেড়ে দিয়ে আসা হয়।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close